পুরনো ছবি সংরক্ষণ করুন ৭টি সহজ উপায়ে

সবার কাছেই বাক্স ভর্তি পুরনো ছবির সংগ্রহ রয়েছে। বছরের পর বছর ধরে এগুলো পড়ে রয়েছে স্মৃতি নিয়ে। ধীরে ধীরে ঘোলাটে হয়ে আসছে। এগুলো একসময় নষ্ট হয়ে যাবে। তবে ডিজিটাল প্রযুক্তি আর একটি প্রিন্টার পুরনো জিনিসগুলো সংরক্ষণ করতে পারে। পুরনো মহামূল্যবান স্মৃতিগুলো সহজে সংরক্ষণের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রথমেই আপনার ছবিগুলো স্ক্যান করতে হবে। ক্যাননের পিক্সমা টিএস প্রিন্টারের তারবিহীন প্রক্রিয়ার সুবিধা নিতে পারেন। কিছু ফটো এডিটিং টুল ইনস্টল করতে হবে। ছবিগুলো মেরামতের সাধারণ পদ্ধতিগুলো শিখে নিন। স্ক্র্যাচেস, ফেড অ্যাওয়ে ডাস্ট, টোন-আপ কালার্স এবং শার্পেন ফাজি এজ জেনে নিতে হবে।

১. ব্যাকআপ করুন : একটি উপায়ে মৃতপ্রায় ছবিগুলোতে প্রাণ ফেরানো সম্ভব নয়। তবে কিছু মৌলিক টুলের মাধ্যমে সংরক্ষণের কাজটি করতে পারেন। একটি কার্যকর কৌশল হলো, নিয়মিত ব্যাকআপ করবেন কয়েকটি ভিন্ন পয়েন্টে। যদি কোনো পয়েন্ট ভালো না লাগে, তবে আগের জায়গায় ফিরে যেতে পারবেন।

২. পরিষ্কার করে নিন : প্রথমেই যা করতে হবে তা হলো, স্ক্যানার এবং ফটোগুলো পরিষ্কার করে নিতে হবে। ময়লা ও ধুলো লেগে থাকে এগুলোতে। পরিষ্কার করে না নিলে স্ক্যানিংয়ে ধুলো বোঝা যাবে। তখন এগুলো জুম করে ডিজিটালি পরিষ্কার করে নিতে হয়।

৩. লেয়ারের কাজ বুঝে নিন : আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো লেয়ারের কাজে দক্ষ হয়ে ওঠা। জিআইএমপি বা অ্যাডব ফটোশপের মতো কোনো সফটওয়্যারের অ্যাডজাস্টমেন্ট লেয়ারের বিষয় বুঝে নিতে হবে। লেয়ারের মাধ্যমে ছবির যেকোনো অংশের অবস্থার উন্নতি ঘটানো যায়। যদি ব্যাকগ্রাউন্ডে হালকা আঁচড়ের দাগ থাকে তবে তা মাস্ক অফ করা যায়। এতে অবশ্য ছবি কিছুটা ঘোলা হয়ে যেতে পারে।

৪. ক্লোনের কারসাজি : ভালো মানের এডিটিংয়ের আরেকটি উপায় ক্লোন ব্রাশ বা টুল। এর মাধ্যমে ছবির কোনো অংশকে আঁচড়মুক্ত করে তার একটি অংশ অন্যখানে আলাদা করে নেওয়া যায়। আঁচড়গুলো মুছে ফেলে ছবির বিভিন্ন অংশের মিশেল ঘটাতে দারুণ কাজ করে ক্লোন।

৫. শার্প : ছবির ঘোলা অংশ শার্প ও কনট্রাস্টের মাধ্যমে ঠিকঠাক করে নেওয়া যায়। হিলিং ব্রাশ ব্যবহার করে স্পর্শকাতর অংশগুলো ঝকঝকে করে নেওয়া যায়।

৬. সহজাত সৌন্দর্য : হোয়াইট ব্যালেন্সিং অপশনের মাধ্যমে ছবিগুলোকে স্বাভাবিক করে তোলা যায়। পুরনো ছবি যেমন হওয়া উচিত তেমন চেহারা দেওয়া সম্ভব।

৭. শুরু করে দিন : প্রযুক্তির মাধ্যমে পুরনো ছবি সংরক্ষণ অস্বাভাবিক প্রক্রিয়া বলে মনে হতে পারে। কিন্তু প্রক্রিয়াটি সহজ। যতটা জটিল মনে হবে, ততটা নয়। একটু চর্চা করে নিন। এরপর ছবিগুলো স্ক্যান কপি নিয়ে বসে পড়ুন। দেখবেন, পুরনো ছবিগুলো আরো ভালো অবস্থায় ফিরে আসবে।
সূত্র : টেলিগ্রাফ

Comments

comments

" প্রযুক্তির সর্বশেষ আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন "

Related Post