শুভ জন্মদিন ‘বিল গেটস’

“যদি আপনি গরীব হয়ে জন্মগ্রহন করেন তবে সেটি আপনার দোষ নয়, কিন্তু আপনি যদি গরীব হয়ে মৃত্যবরণ করেন তবে সেটিই আপনার দোষ” কথাটি বলেছেন উইলিয়াম হেনরি গেটস। যা বলেছেন বাস্তব জীবনে তা করে দেখিয়েছেন। অনেকের মনেই হয়তো খটকা লাগছে। কেননা উপরিউক্ত বক্তব্যটি তো বিল গেটস এর। তাহলে এই হেনরি উইলিয়াম গেটস কে? হ্যা বিল গেটস এর পুরো নামই হলো উইলিয়াম হেনরি গেটস।

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির আজ ৬১ তম জন্মদিন। ১৯৫৫ সালের ২৮ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটেলে উইলিয়াম বিল হেনরি গেটস এর জন্ম। যাকে আমরা সকলে মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস নামে জানি।

১৯৭৫ সালে তিনি মাইক্রোসফটের কো-প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। তখন তার আরেকজন সঙ্গী ছিলেন পল এলেন। সে তার নিজস্ব কম্পিউটার দক্ষতার দ্বারা সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। সে এবং তার স্ত্রী মেলিন্দা সাড়া বিশ্বব্যাপী ৩০ বিলিয়ন ডলার দান করেছেন।

আজ তার ৬১তম জন্মদিনে তার বিষয়ে কিছু অজানা তথ্য নিয়ে আলোচনা করা হল-

১. বিল গেটস তার প্রাইমারি শিক্ষা লেকসাইড প্রিপ স্কুলে সম্পন্ন করেন। সেখানে শিক্ষা গ্রহণের সময় তিনি প্রথম জেনারেল ইলেকট্রিক কম্পিউটারে প্রথম একটি প্রোগ্রাম তৈরি করেন। তখন তিনি টিক-ট্যাঁক-টো এর একটি ভার্সন তৈরি করেন। যা কম্পিউটার ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে কাজ করবে।

২. গেটস তার স্কোলাস্টিক অ্যাপটিটিউড টেস্ট এ ১৬০০ নম্বরের মধ্যে ১৫৯০ নম্বর অর্জন করেন। ১৯৭৩ সালে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি সম্মানজনক স্থান দখল করেন।

৩. তিনি যখন হার্ভার্ড এ পড়াশোনা করছিলেন তখন তার স্কুলের বন্ধু পল এলেনের সঙ্গে BASIC নামের কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে কাজ শুরু করেন। তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা ২ বছর ত্যাগ করেন। সেই দুই বছরে তিনি মাইক্রোসফট তৈরি করেন।

৪. ১৯৭৫ সালে গেটস ও এলেন মাইক্রোসফট চালু করেন। তারা প্রথমে মেক্সিকোর একটি এপার্টমেন্টে এর কাজ শুরু করেন। ১৯৭৭ সালে তারা কোম্পানি রেজিস্ট্রি করে মাইক্রোসফট চালু করেন।

৫. গেটস আইবিএমের সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত করেছিলেন। ১৯৮০ সালে আইবিএমের সাথে একত্রে কাজ করে পারসোনাল কম্পিউটারের জন্য ডস সিস্টেম তৈরি করা হয়।

৬. বিল গেটস সর্বকনিষ্ঠ আত্মকৃত ধনী ব্যক্তি। তিনি মাত্র ৩১ বছর বয়সে বিলিয়নিয়ার হবার খেতাব অর্জন করেন।

৭. তিনি কয়েক দশক ধরে পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী মানুষ। তার ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণে ৮০ বিলিয়ন ডলার হতে পারে বলে জানা যায়।

৮. বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা ২০০০ সালে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। বিশ্বজুড়ে এই দাতব্য ফাউন্ডেশন ৩৪.৫ বিলিয়ন ডলার দান করেছেন।

৯. ২০১৫ সালে ভারত সরকার তাদের সামাজিক কাজের জন্য বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনকে পদ্মভূষণে ভূষিত করেন। এটি ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ অসামরিক পুরস্কার।

১০. এছাড়া মাইক্রোসফট এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ছাড়াও গেটস আরও পাঁচটি পৃথক কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত করেছেন: ক্যাসকেড ইনভেস্টমেন্টস এলএলসি, bgC3, Corbis, TerraPower এবং রিসার্চ গেট।–সূত্র:

Comments

comments

" প্রযুক্তির সর্বশেষ আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন "

Related Post