ব্রডব্যান্ড ব্যবসা গুটাচ্ছে গুগল

ফাইবার ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক এর বিস্তার থেকে ক্রমশ পিছিয়ে যাচ্ছে ওয়েব জায়ান্ট গুগল। অথচ তারাই আগে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে উচ্চগতির ইন্টারনেট আনায় নেতৃত্বস্থানীয় ছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এক ব্লগ পোস্টে গুগল ফাইবার এর প্রধান নির্বাহী ক্রেইগ ব্যারেট পদত্যাগের ঘোষণা দেন। সেই সঙ্গে অনেক শহরে উন্নয়নে ‘বিঘ্ন’ ঘটতে পারে বলেও জানান তিনি। যেসব শহরে ইতিমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে, সেগুলোতে ইনস্টলেশনের কাজ অব্যাহত থাকবে বলেও জানা গেছে।

এক বিশ্লেষক জানান, গুগল কম খরচে ব্রডব্যান্ড ব্যবহারের উপায় অনুসন্ধান করছে। “ইনস্টলেশন খুব সময়সাধ্য এবং ব্যয়বহুল”, বলেন ‘ওভাম’ নামের পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক কামালিনি গাঙ্গুলি। “মূলধারার ব্রডব্যান্ড অ্যাকসেস প্রযুক্তিতে ফাইবার সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিকল্প। আমি মনে করি, ভবিষ্যতে গুগল ‘বেতার’ ব্যবস্থা প্রচলন করতে পারবে, যাতে তাদের আর ফাইবার প্রযুক্তির মাধ্যমে বাসাগুলোয় সংযোগ স্থাপনের চেষ্টা করতে হবে না। আমরা প্রযুক্তির এক অপূর্ব সমন্বয় দেখতে পারব।”

গুগল ফাইবার মূলত অনুন্নত ইন্টারনেট কাঠামোর শহরগুলোতে ইন্টারনেটের ব্যবহার সহজলভ্য করতে তৈরি হয়েছিল। ২০১০ সালে এই প্রকল্প ঘোষণা করা হয় এবং ছোট-বড় হাজারেরও বেশি শহর এই সুযোগ পেতে আবেদন করে।

ফাইবার অপটিক তার প্রচলিত কপার তার বা চিরাচরিত বেতার ইন্টারনেটের চেয়ে বেশি দ্রুততর। গতি বেশি হলেও এসব ফাইবার অপটিক ব্যবস্থা তুলনামুলকভাবে অত্যন্ত ব্যয়বহুল।

ব্যারেট জানিয়েছেন, ‘নতুন প্রযুক্তির’ দিকে জোর দিয়ে প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনা ‘ঢেলে সাজানো’ হয়েছে। তবে তা ‘বেতার’ প্রযুক্তিই হবে কিনা তা স্পষ্ট করে বলা হয়নি।

Comments

comments

" প্রযুক্তির সর্বশেষ আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন "

Related Post